1. m.milon77@gmail.com : Daily Mail 24.live : Daily Mail 24.live
  2. info@www.dailymail24.live : Daily Mail 24 :
শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ১০:২৩ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
লালমনিরহাটে ৫ম শ্রেণীর ছাত্রীকে ফুসলিয়ে বিয়ের তথ্য ফাঁস এলাকায় তোলপাড় ভারতের সিকিমের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রীর লাশ ভেসে এলো লালমনিরহাটে-DailyMail নেতার বিরুদ্ধে অপপ্রচারে ক্ষুব্ধ স্থানীয় জনতা-DailyMail পাঁচ মাসের অ/ন্তঃ/সত্ত্বা স্ত্রী/র পেটে লা/থি, মা/র/ধ/রঃ প/র/কী/য়ায় ব্যস্ত স্বা/মী-DailyMail লালমনিরহাট পৌরসভার বাজেট ঘোষণা: আধুনিক ও জনকল্যাণমুখী পৌরসভা গঠনে বদ্ধপরিকর  হরিজনদের নিয়ে কেউ ভাবে নাঃ বৃদ্ধা হরিজনের আকুতি-DailyMail লালমনিরহাট রেলওয়ে স্টেশনে ১০ কেজি গাঁজাসহ যুবক গ্রেফতার-DailyMail বানরের অত্যাচারে অতিষ্ঠ কালীগঞ্জের মানুষ-DailyMail কালীগঞ্জে কৃষকের ৩টি গরু পুড়ে ছাঁই লালমনিরহাটের আদিতমারীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধে হামলা ও অগ্নিসংযোগ: থানায় মামলা দায়ের

চেক প্রজাতন্ত্রে ভয়াবহ বন্দুক হামলায় নিহত-১৪

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: শুক্রবার, ২২ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ১৪৯ বার পড়া হয়েছে

 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক।।

চেক প্রজাতন্ত্রের কয়েক দশকের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ বন্দুক হামলায় ২৪ বছর বয়সী এক ছাত্র বৃহস্পতিবার ১৪ জনকে হত্যা করেছে এবং ২৫ জন আহত করেছে। কর্তৃপক্ষ বলেছে, পরে হামলাকারী আত্মহত্যা করেছে।

সহিংসতার কারণে ভারী সশস্ত্র পুলিশের ব্যাপক তৎপরতা এবং লোকদের বাড়ির ভিতরে থাকার জন্য সতর্কতা জারি করায় শহরের ঐতিহাসিক কেন্দ্রে আতঙ্কিত লোকজন ছুটাছুটি শুরু করে।
চার্লস ইউনিভার্সিটির কলা অনুষদে গুলি চালানো হয়, যেটি চতুর্দশ শতাব্দীর চার্লস ব্রিজের মতো প্রধান পর্যটন স্থানগুলোর কাছে অবস্থিত।

পুলিশ প্রধান মার্টিন ভন্ড্রাসেক গুলি চালানোর পর সাংবাদিকদের বলেন, ‘এই মুহুর্তে আমি ভয়ঙ্কর হামলায় ১৪ জন নিহত এবং ২৫ জন আহত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করতে পারি। আহতদের মধ্যে ১০ জনের অবস্থা গুরুতর।’

তিনি বলেন, নিহতদের সবাইকে ভবনের ভেতরেই হত্যা করা হয়েছে। মিডিয়া জানিয়েছে অন্তত কয়েকজন বন্দুকধারীর সহযোগী ছাত্র ছিল।
ডাচ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, আহতদের মধ্যে একজন ডাচ নাগরিক।

ভন্ড্রাসেক বলছেন, বন্দুকধারী সম্পর্কে পুলিশের কাছে আগাম কোন তথ্য ছিল না। তার কাছে ‘অস্ত্র ও গোলাবারুদের বিশাল ভান্ডার’ ছিল এবং দ্রুত পুলিশি পদক্ষেপ আরও গুরুতর হত্যাকান্ড প্রতিরোধ করে।

সরকার ২৩ ডিসেম্বর জাতীয় শোক দিবস ঘোষণা করেছে। সরকারি ভবনে পতাকা অর্ধনমিত রেখে জনগণকে দুপুরে এক মিনিট নীরবতা পালন করতে বলা হয়।

নিখোঁজ শিক্ষার্থীদের তালিকা সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করা হয়েছে। গুলি থেকে নিরাপদে থাকা শিক্ষার্থীরা তাদের বন্ধু-বান্ধব ও আত্মীয়দের অবস্থা জানানোর জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছে।
ভন্ড্রাসেক বলেন, প্রাগের পশ্চিমে হোস্টউন গ্রামে হামলাকারীর বাবাকে মৃত অবস্থায় পাওয়ার পর বিশ্ববিদ্যালয়ে গণ গুলি চালানোর আগে পুলিশ ওই ব্যক্তির খোঁজ শুরু করে।

বন্দুকধারী ‘প্রাগের দিকে রওনা দিয়েছিলেন যে, তিনি আত্মহত্যা করতে চান’ এ কথা উল্লেখ করে ভন্ড্রাসেক বলেছেন, পুলিশের ধারণা আগে বন্দুকধারী তার বাবাকে হত্যা করেছে।

পুলিশ কলা অনুষদের একটি ভবনে অনুসন্ধান করেছে যেখানে বন্দুকধারী একটি বক্তৃতার জন্য উপস্থিত হবে বলে আশা করা হয়েছিল। কিন্তু তিনি কাছাকাছি অনুষদের মূল ভবনে যান এবং তারা তাকে খুঁজে পাননি।

‘গ্রীনিচ মান সময় ১৩৫৯ টায়, আমরা শুটিং সম্পর্কে প্রথম তথ্য পেয়েছি’ উল্লেখ করে ভন্ড্রাসেক সাংবাদিকদের বলেন, পুলিশের জরুরি ইউনিট ১২ মিনিটের মধ্যে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়।

‘গ্রীনিচ মান সময় ১৪২০ টায়, কর্মরত অফিসাররা বন্দুকধারীর মৃতদেহ সম্পর্কে আমাদের অবহিত করেছে’। ভন্ড্রাসেক বলেছেন, অসমর্থিত তথ্যে জানা যায় তিনি আত্মহত্যা করেছেন।

সোশ্যাল মিডিয়ার তদন্তের উদ্ধৃতি দিয়ে, বিশদ বিবরণে না গিয়ে ভন্ড্রাসেক বলেছেন, বন্দুকধারী ‘রাশিয়ায় একই রকম ঘটনা’ দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়েছিল।

ভন্ড্রাসেক বলেন, পুলিশ বিশ্বাস করে যে, একই বন্দুকধারী ১৫ ডিসেম্বর প্রাগের পূর্ব উপকণ্ঠে একটি জঙ্গলে হাঁটার সময় এক যুবক এবং তার দুই মাস বয়সী মেয়েকে হত্যা করেছিল। ভন্ড্রাসেক বলেন, বৃহস্পতিবারের অভিযানে কোনো পুলিশ কর্মকর্তা আহত হননি।

পুলিশ ভবনটি খালি করেছে, সরিয়ে নেওয়া লোকদের জন্য অস্থায়ী আশ্রয় হিসাবে রাস্তার ওপারে একটি কনসার্ট হলের ভেতর ব্যবস্থা করেছে।
চেক প্রেসিডেন্ট পেত্র পাভেল বলেছেন, তিনি সহিংসতায় ‘মর্মাহত’ এবং ‘নিহতদের পরিবার ও আত্মীয়দের প্রতি গভীর দুঃখ ও আন্তরিক সমবেদনা’ প্রকাশ করেছেন।

প্রধানমন্ত্রী পেত্র ফিয়ালা বলেছেন, একা বন্দুকধারী অনেক লোককে হত্যা করেছে, তাদের বেশিরভাগ তরুণ। তিনি বলেন,‘এই জঘন্য কাজের কোন যৌক্তিকতা নেই।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: 𝐘𝐄𝐋𝐋𝐎𝐖 𝐇𝐎𝐒𝐓