1. m.milon77@gmail.com : Daily Mail 24.live : Daily Mail 24.live
  2. info@www.dailymail24.live : Daily Mail 24 :
শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ০৯:২৩ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
লালমনিরহাটে ৫ম শ্রেণীর ছাত্রীকে ফুসলিয়ে বিয়ের তথ্য ফাঁস এলাকায় তোলপাড় ভারতের সিকিমের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রীর লাশ ভেসে এলো লালমনিরহাটে-DailyMail নেতার বিরুদ্ধে অপপ্রচারে ক্ষুব্ধ স্থানীয় জনতা-DailyMail পাঁচ মাসের অ/ন্তঃ/সত্ত্বা স্ত্রী/র পেটে লা/থি, মা/র/ধ/রঃ প/র/কী/য়ায় ব্যস্ত স্বা/মী-DailyMail লালমনিরহাট পৌরসভার বাজেট ঘোষণা: আধুনিক ও জনকল্যাণমুখী পৌরসভা গঠনে বদ্ধপরিকর  হরিজনদের নিয়ে কেউ ভাবে নাঃ বৃদ্ধা হরিজনের আকুতি-DailyMail লালমনিরহাট রেলওয়ে স্টেশনে ১০ কেজি গাঁজাসহ যুবক গ্রেফতার-DailyMail বানরের অত্যাচারে অতিষ্ঠ কালীগঞ্জের মানুষ-DailyMail কালীগঞ্জে কৃষকের ৩টি গরু পুড়ে ছাঁই লালমনিরহাটের আদিতমারীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধে হামলা ও অগ্নিসংযোগ: থানায় মামলা দায়ের

ছেলেকে বাচাঁতে বাবার কৌশলঃ বাদীর বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগ

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: সোমবার, ১ জুলাই, ২০২৪
  • ৪৫ বার পড়া হয়েছে

ওয়াদুদ আহমেদ মিলু

লালমনিরহাট (কালীগঞ্জ)প্রতিনিধি।।

লালমনিরহাটের জেলার হাতীবান্ধায় উপজেলা মামলার বাদীর বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। নিহত আরজিনা বেগমের ভাই সিরাজুল ইসলাম মামলার বাদী রফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ তুলেন। তার দাবী ছেলেকে বাচাঁতে রফিকুল ইসলাম এ মামলার বাদী হয়েছেন। হামলায় আহত হওয়ার ১৬ দিন পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার সকালে নিজ বাড়িতে মারা যান আরজিনা বেগম। এর আগে গত রোববার (১৬ জুন) ওই উপজেলার উত্তর পারুলিয়া গ্রামে হামলার শিকার হয় আরজিনা বেগম। নিহত আরজিনা বেগম ওই এলাকার গোলাপ হোসেনের স্ত্রী। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করেছে।

নিহতের ভাই সিরাজুল ইসলাম বলেন, গত ১৬ জুন তার বোনকে প্রতিবেশী সর্ম্পকে ভাতিজা ফরমান আলী ওরফে রিপন মিয়া ও তার পিতা রফিকুল ইসলামসহ অনেকেই মারধর করেন। পরে গ্রামবাসী তার বোনকে উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতালে পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। ঘটনার দুই দিন পর থানায় গিয়ে আমরা জানতে পারি হামলার সাথে জড়িত রফিকুল ইসলাম নিজে মামলার বাদী হয়ে অপর হামলাকারী তার ছেলে ফরমান আলী ওরফে রিপন মিয়াকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন। পুত্রকে রক্ষা করতে পিতার এমন কৌশল অথচ ওই হামলার মূল নায়ক রফিকুল ইসলাম। এ ঘটনার পর পরেই স্থানীয় এক নেতা আমাদের ঘটনাটি মিমাংশা করতে চাপ দিয়ে আসছেন। এমতাবস্থায় সোমবার সকালে আমার বোন মারা যায়। এ ঘটনায় আমরা থানায় মামলা করতে গেলে পুলিশ আমাদের মামলা নেয়নি বলে দাবী করেন নিহতের ভাই সিরাজুল ইসলাম।

এ দিকে আরজিনা বেগম মারা যাওয়ার পর পরেই মামলার বাদী রফিকুল ইসলাম ও আসামী তার পুত্র ফরমান আলী ওরফে রিপন মিয়া গা-ঢাকা দিয়েছেন। ফলে তাদের সাথে একাধিক বার যোগাযোগ করা হলেও বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

হাতীবান্ধা থানার ওসি সাইফুল ইসলাম বলেন, লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করা হবে। ঘটনাটি গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে। যদি মামলা বাদী ঘটনার সাথে জড়িত থাকে অবশ্যই তাকেও আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: 𝐘𝐄𝐋𝐋𝐎𝐖 𝐇𝐎𝐒𝐓