1. m.milon77@gmail.com : Daily Mail 24.live : Daily Mail 24.live
  2. info@www.dailymail24.live : Daily Mail 24 :
বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ১১:০৩ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
লালমনিরহাটের আদিতমারীতে প্রধানমন্ত্রীর উপহার জমি ও ঘর প্রদান উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলন প্রধানমন্ত্রীর উপহার জমি ও ঘর প্রদান উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলন কালীগঞ্জে ভোগান্তি ছাড়াই মিলবে ভূমিসেবা লালমনিরহাটে ভূমি ও গৃহহীন পরিবারকে পূনর্বাসনে জমি ও বাড়ি প্রদান কার্যক্রম সংক্রান্ত সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত লালমনিরহাটের কালীগঞ্জে ব্রাক চাকলারহাট ব্রাঞ্চের উদ্যোগে পলিথিন বর্জন কর্মসূচি পালন লালমনিরহাটে ট্রেনের ধাক্কায় প্রাণ হারালো যুবক নামাজ পড়তে গিয়ে রিকশা হারালো রমজান আলীঃ সহযোগিতা করলেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান  লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ ও আদিতমারী উপজেলার নির্বাচিত চেয়ারম্যান রাকিবুজ্জামান ও ফারুক  শপথ নিলেন। কালীগঞ্জে পশুর হাটে অতিরিক্ত টোল আদায়ে জরিমানা লালমনিরহাটের কালীগঞ্জে বিদ্যুৎস্পৃস্টে গরুর মৃত্যু

সকল প্রতিবন্ধকতা কাটিয়ে স্কুল সেরা হলো শামসুন্নাহার শোভা

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: রবিবার, ১৯ মে, ২০২৪
  • ৫৫ বার পড়া হয়েছে

বিশেষ প্রতিবেদক।। 

“বাবা ছোট মুদি দোকানদার, মা ক্যান্সারের রোগী, একমাত্র ভাই জন্ম বুদ্ধি প্রতিবন্ধী। কিন্তু কোন প্রতিবন্ধকতাই আটকাতে পারেনি মেধাবী শামসুন্নাহার বেগম শোভাকে”।

লালমনিরহাট সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজের সুনাম ছিল বরাবরই। কিন্তু এবার একধাপ এগিয়ে মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) পরিক্ষায় একমাত্র গোল্ডেন এ+ পেয়ে সবার মুখে হাসি ফোটালো শামসুন্নাহার বেগম শোভা। লালমনিরহাট সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ এবার থেকে এসএসসি’তে ২৭৭ জন পরিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে। ২১৮ জন পাশ করে। সবার মধ্যে একমাত্র শোভা’ই গোল্ডেন এ(+) পায়। 

সামসুন্নাহার বেগম শোভা লালমনিরহাট জেলা সদরের ভকেশনাল মোড়ের বাসিন্দা। তার বাবা মোঃ সাহেদুল ইসলাম, মুদি দোকানদার। মা- মোছাঃ শাহানাজ বেগম দীর্ঘদিন থেকে ক্যান্সারে আক্রান্ত। একমাত্র ছোট ভাই সাগর জন্ম বুদ্ধি প্রতিবন্ধী। কিন্তু সকল বাঁধাকে উপেক্ষা করে গোল্ডেন এ প্লাস পেয়ে পরিবারের সকলের মুখ উজ্জ্বল করেছে শোভা।

এ বিষয়ে শোভা বলে- আমাদের সংসারের কাজ করার লোক কম। বাবা, ছোট মুদি দোকানদার। সারাদিন দোকানেই কাজ করেন। মা ক্যান্সারের রোগী, কোন কাজ করতে পারে না। তাই পরিবারের সব কাজ আমাকে নিজের হাতে করতে হয়। একমাত্র ছোট ভাইটি বুদ্ধি প্রতিবন্ধী হওয়ায় তার প্রতি আমাকে যত্ন নিতে হয়। সবকিছু মিলিয়ে পরিবারের সকল দায়িত্ব আমার উপর। আমি অনেক পরিশ্রম করে এই সাফল্য অর্জন করেছি। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন। আমি যেন একজন প্রকৌশলী হয়ে দেশের মুখ উজ্জ্বল করতে পারি। 

শোভার বাবা সাহেদুল ইসলাম বলেন- আমি সারাদিন দোকানে থাকি। শোভা বাড়ির সকল কাজকর্ম করে। সে গোল্ডেন এ + রেজাল্ট করবে এটা আমি কল্পনাও করিনি। সবাই আমার মেয়ের জন্য দোয়া করবেন। আমি যেন তাকে একজন আদর্শ মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে পারি। 

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: 𝐘𝐄𝐋𝐋𝐎𝐖 𝐇𝐎𝐒𝐓